Himachal, Ladakh, Photologue
Leave a Comment

Don’t tell my Mother – VI Ladakh’12

19:27

এখানে কারনেই সন্ধ্যে অনেক দেরিতে হয় – উচ্চতা । 19:30 is almost now, অার বাইরে এখনো দিনের ক্ষীণ অালো অাছে ।

অাজকে মোটামুটি অালসেমীর মধ্যেই দিন কাটলো । বিকালে মান সিংহের সঙ্গে বাইরে বেরিয়ে কিছু প্ল্যান ফিট করলাম । রুমের বাকি পয়সা মিটিয়ে দিলাম, মান সিং মঙ্গলবার নিজের বাড়ির জন্য বেরিয়ে যাচ্ছে (মানালি) ।

GAP

08.27.2012

16:05

Pangong -এর দিন থেকে লক্ষ্য করছি হঠাৎই মাথা যন্ত্ররার প্রবলেমটা অনেকটা কমে গেছে । একটু ভেবে বললে, অার একদম নেই বললেই চলে ! লেহ্ -এর অাবহাওয়া মনে হচ্ছে অামার মধ্যেও সু্যট করতে শুরু করে দিয়েছে । জলটা এখন অার এতটা না খেলেও চলে, তবে একেবারে কমও যাতে না হয় তাও দেখছি ।

গতকাল রাত্তিরেই নিয়ে এসেছিলাম – Impulse. Petrol ভরে (৫ লিটার) গেস্ট হাউসের সামনেই দাঁড় করিয়ে রেখেছিলাম । অনেক রাত পর্য্যন্ত ঘুমাতে পারলাম না, মাথার মধ্যে দিয়ে বিভিন্ন চিন্তা ছুটে যাচ্ছিল । এ এক এমন জিনিষ করতে যাচ্ছিলাম যা অামি কোনদিন করিনি । কিন্তু এ অামার কাছে নিজেকে জানার এক সুযোগও বটে । একে অামি হাতছাড়া করতে চাইছিলাম না । এতদিন এ শুধু অামার মননেই ছিল, অার তা কাল বাস্তব হতে চলেছে । অনেক রাত পর্য্যন্ত ঘুমাতে পারলাম ন – খারাপ, ভালো সব চিন্তাই বিদ্যুতের বেগে ছুটে যাচ্ছিল । শরীর ঘুমোতে চাইলেও মাথাকে যেন off করতে পারছিলাম না । My first bike ride to Khardung-La.

GAP

সকাল 08:45 নাগাদ যাত্রা শুরু করলাম । মনেতে ছিল মিশ্র ভয় অার excitement -এর মিশ্রন । মান সিংহের encouragement ভালো লেগেছিল ।

লেহ্ গেট -এর বাঁদিকে ঘুরে খারডুংলার রাস্তা ধরলাম । এক কথায় অপূর্ব । এতদিন শুধু যে রাস্তা দিয়ে চার’চাকাতেই সাধারনতঃ ঘুরেছি (যে রাস্তা বলতে typical পাহাড়ী রাস্তা), অাজ সেই রাস্তায় অামার বাইক নিয়ে উড়ে চলেছি । এ জিনিষ বোঝাতে পারব না – এ এক অদ্ভুত freedom, অার তাও এই পাহাড়ী রাস্তায় এ freedom যেন অারো বাড়িয়ে দেয় ।

Impulse একটু উঁচু বাইক, ভারিও অাছে একটু । এর অাগে কখনও Impulse চালাইনি, কিন্তু চালানোর ইচ্ছা ছিল, অার এখানে সেটাকেও পেয়ে গেলাম। It really has good power. অার এটাকে India -এ প্রথম off-road bike হিসাবেও বানানো হয়েছিল । It was fabulous! (এর মধ্যে South-Pullu নামক চেকপোস্টে একটা ছেলের সাথে পরিচয় হল যে হোণ্ডা কোম্পানীতে চাকরি করে বলে জানাল এবং অামার Impulse দেখে এগিয়েও এল । সে in fact অামার কাছ থেকে বাইকের response শুনে খুব খুশিও হল । Nice guy! )

পাহাড়ের গা বেয়ে সরু রাস্তা এঁকেবেঁকে চলে গেছে অার তার ওপরেই biking. ক্রমশঃ altitude উঁচু হতে শুরু করল, অার তারসাথে তাল মিলে দিগন্ত বিস্তৃত পাহাড়ের রাশিও অারও উন্মুক্ত হতে শুরু করল । নিচে থেকে নিচের দিকে পড়ে থাকতে শুরু করল লোকাল কলোণী, ক্ষেত, মানুষের বসতি । অাঁকাবাঁকা সর্পিল পথ বেয়ে যত উপরে উঠতে শুরু করলাম বুঝলাম altitude তার প্রভাব দেখাতে শুরু করেছে । হেলমেট্ -এর কাঁচ ঢাকা থাকাতে ততটা না বুঝতে পারলেও গ্লাভসের মধ্যে থেকে বুঝতে পারছিলাম হাতের তালু অার অাঙুল ঠাণ্ডা হতে শুরু করেছে ।

এই রাস্তায় 1st check-post South-Pullu পর্য্যন্ত রাস্তা মোটামুটি ভালোই থাকল । কিন্তু চেকপোস্টের পর থেকে রাস্তা ক্রমশঃ খারাপ হতে শুরু করল । Khardung-La -র কাছাকাছি তো রীতিমতো অার্মি দিয়ে রাস্তার কাজও হতে দেখা গেল জায়গায় জায়গায় । বিশাল বিশাল পাথর ভাঙার মেশিন দিয়ে রাস্তার পাশের পাথর ভেঙে, পরিষ্কার করার কাজ চলছিল । অামি at least একটা ভরসা ফিল করছিলাম যে অামার কাছে off-road বাইক অাছে ওরম রাস্তায় ওঠার জন্য । কিছু অাগে এক couple -কে নিঃশ্বাস ফেলতে শুনেছিলাম তাদের Pulsar -এর এই রাস্তায় performance -এর জন্য ।


Khardung-La
যখন গিয়ে পৌঁছালাম, তখন মনে হল একটা মিশ্‌ন accomplish হল । Summit-এ ততক্ষনে অারো মানুষের ভিড় জমে গেছে । মানুষের কলতান, পাশের monastery থেকে ভেসে অাসা মন্ত্রপূত গান, পতপত করে ওড়া তিব্বতী মন্ত্রপূত পাতা, চায়ের অাড্ডা, সবমিলিয়ে যেন ওখানে একটা জমজমাট পরিবেশ সৃষ্টি হয়ে গেছিল । অামি বিশ্বের সবথেকে উঁচু রেস্টুরেণ্ট থেকে গরম ম্যাগি অার চায়ের অর্ডার দিলাম । বাইরে তখন সুক্ষ্ম ঠাণ্ডায় মুখের চোয়াল শক্ত হয়ে যাচ্ছে, ক্রমাগত মুখ থেকে শ্বাস নিতে হচ্ছে । কর্কশ ঠাণ্ডায় ঠোঁট ফেটে জ্বালাজ্বালা করছে । অার সেমত অবস্থায় এক বাটি গরম ম্যাগি (enough ঝোলের সাথে) অার চা – man, it was heaven! অামি যে কতটা গোগ্রাসে খেয়েছি সেটা অামিই জানি ।

Summit -এ অার্মিদের একটা মেডিকেল ফার্স্ট-এইড ক্যাম্পও অাছে দেখলাম (যেটা অনেক documentary -তেই এর অাগে দেখেছি), কারোও কোন নিঃশ্বাসের অসুবিধা হলে তখন এমার্জেন্সী ভিত্তিতে অার্মিরা সাহায্য করে ওখানে ।

ঠিক ওখানে একটু উঁচুতে একটা monastery -ও ছিল, কিন্তু I was so soaked and happy, যে অামি অার ওখানে উঠলাম না । বরঞ্চ অারো কিছু সময় বিশ্বের সবথেকে উঁচু (18, 380 ft.) motorable way -তে কাটানোর পর নিচে নামতে শুরু করলাম।


Leh -তে ফিরে এসে মান সিংহের সঙ্গে অারো 40 k.m. rode করলাম, NH1 ধরে – Pathar Sahib ছাড়িয়ে Magnetic Hill -এর উদ্দেশ্যে । যাত্রাপথে NH1 -এর infamous ঝোড়ো হাওয়ার সম্মুখীন হলাম – man, what a vicious wind there was!

GAP

08.28.2012

If you ask me, what is the more real and raw nature in Ladakh, I might say – it’s rivers! And when you raft in a river of 3+ rapid level.

You need to live it to believe it ! Rafting শুরু হল চিলিং থেকে, অার canyon -এর মধ্যে দিয়ে বয়ে চলা Zanskar river -এর ওপর, শেষ টার্গেট Sangam (Zanskar and Indus meeting place). পুরো অাড়াই ঘণ্টার rafting, তিনটে বড় rapid অার অগুনতি ছোট rapids -এর মধ্যে দিয়ে, nature -এর raw রূপকে অনুভব করা ।

(ফেরার সময় যখন ধূ ধূ প্রান্তরের মধ্যে দিয়ে NH1 রোড ধরে অামরা ছুটে চলেছিলাম, অার দূর প্রান্তরের পাহাড়ের মাথা থেকে ভেসে অাসা বিকালের পড়ন্ত রোদ অামার চোখ-মুখ অাপ্লুত করছিল, তখন হঠাৎই মনে হল, এই জায়গাটাকে অামি ভালোবেসে ফেলেছি । এখানকার পাহাড়, শূণ্যতা, উন্মুক্ততা, সবকে অামি ভালোবেসে ফেলেছিলাম । এখানকার nature, অার তারমধ্যে লুকিয়ে থাকা ভীষন power – সবকে কোথাও যেন নিজের করে নিয়েছি ।)

Zangsti রোডের Snow Fields Tour & Travels -এর থেকে rafting booking হয়েছিল । ১৮০০ হয়, কিন্তু ‘discount’ দিয়ে ১৫০০ । This includes, rafting-এর জায়গা পর্য্যন্ত pick-up, lunch, এবং return drop. এবং দিনের শেষে বিচার করলে, I think its a value for money!

Chilling -এতে তখন already a bunch of enthusiasts অপেক্ষা করছিল শুরুর জন্য । একটা শুরুও হয়ে গেল অামরা যখন পৌঁছালাম । যেটা এখানে হয় সেটা বুঝলাম এই যে, এখানে বিভিন্ন এজেন্সী থাকে, তারা যে clients ওঠায় অার একটা organization/company অাছে যারা rafting -টা execute করে এবং লাঞ্চের ব্যাবস্থা করে – তাদের কাছে পাঠিয়ে দেয়া হয় । বিভিন্ন এজেন্সীগুলো তাদের clients -দেরকে এখানে পাঠায় ফলে হয় কি, একটা সম্মিলিত enthusiasts -দের ভিড় হয় একই জায়গাতে এবং সেই একটাই organization পুরো জড়ো হওয়া ‘clients’ -দের একসাথে rafting করায় । এর জন্য দরকার মতো rafting -এর ভেলা/kayak অানা হয় । সমস্ত rafters -দের গ্রুপে ভাঙা হয় বিভিন্ন ভেলাতে, এবং সঙ্গমের দিকে সবাই রওনা দেয় । এরজন্য যা যা জিনিষপত্র দরকারী সমস্ত সেই organization/company provide করে, i.e. kayak, special cloths, helmet etc. etc.

যখন শুরু হল – তখন তো বোঝানোও মুশকিল, হয়ত সাথে থাকলে সবথেকে ভালো প্রকাশ করা যেত সেই সময়টা । এ এক অন্য brute force, অারো raw নেচার. এক একটা করে যখন rapid অাসতে শুরু করল, অার তার সঙ্গে যোঝা একটা ছোট্ট ভেলাটুকু নিয়ে, সে এক অালাদা যুদ্ধ । এরমধ্যে 1st big rapid -এই একটা ভেলা (out of 5) উল্টে গেল, অাহত করে একজনকে (it seem he hurts his left hand) এবং সবাইকে সেই ভেলার নাকানি চোবানি খাইয়ে । (অামি Mother Nature -এর কাছে thankful ছিলাম যে সে অামাদের ভেলাকে ছাড় দিয়েছে নিজেদের মতো করে বেরিয়ে যেতে, কারন এটা সত্যি যদি সে না চাইত তাহলে অামরা তার এই বিশাল শক্তির কাছে একটা শোলার টুকরো ছাড়া কিছুই ছিলাম না ।)

যখন সঙ্গমে পৌঁছালাম, তখন most of the rafters -দের energy almost শূণ্য । অাড়াই ঘণ্টার জলযুদ্ধ তাদের অনেকটাই soak করে নিয়েছে । অনেকে অার slow water -এও raft করতে চাইছিল না (অামিও তার মধ্যে যে কোথাও কোথাও চাইনি সেটা না বললেও চলে), অামরা সকলেই ছিলাম ক্লান্ত, ক্ষুধার্তও ।

সঙ্গম থেকে কিছুটা দূরেই ছিল company-এর ক্যাম্পিং এবং সেখানে খাবারেরও ব্যাবস্থা হয়েছিল । সারাদিনের খাটা-খাটনির পর গরম ডাল-ভাত-পাঁপড় – it was priceless.

গোগ্রাসে খেলাম, দু’কাপ কফি শেষ করলাম । বেশ কিছুদিন বাদে rice পেয়ে অামি যেরম খুশী ছিলাম, দিনের ক্লান্তির পর সেই খাবার যেন অামার অানন্দ অারো বাড়িয়ে দিল । যখন ঘরে ফিরলাম তখন ৭ টার দিকে ঘড়ি যেতে শুরু করেছে । রাত্রে কারো birth-day ’র reply পেলাম ।

GAP

08.29.2012

07:05

অস্বীকার করব না এটা অামাকে অবশ্যই হতাশ করেছিল । যখন শুনলাম Tso-Moriri -এর নির্ধারিত দিনে কোন booking হয়ে ওঠে নি । খুবই হতাশ হয়ে পড়েছিলাম যখন হঠাৎই মনে হল যে এতদিনের অাশা করে থাকা কোথাও একটা breaking point -এর সামনে এসে গেছে । অামার হাতে অার মোট দু’দিন এবং এর মধ্যে অাবার Tso-Moriri -এর অ্যারেঞ্জ করা (যদি নির্ধারিত দিনেতে না হতে পারে) কঠিন হয়ে উঠতে পারে ।

29/8 -এ অামার Tso-Moriri যাত্রা করার কথা ছিল, অামি এটাকে সত্যিই দেখতে চাইছিলাম । পকেট বাঁচানো এবং compact position -এ নিয়ে অাসার জন্য অামি এটাকে একদিনেই করতে চাইছিলাম, যদিও most of the Tso-Moriri trip দু’দিনের হয়ে থাকে (একদিনের night stay নিয়ে) এর দূরত্বের জন্য ।

Leh থেকে Tso-Moriri 215 k.m. যেটা একদিনে করতে হলে অবশ্যই অনেক সকালে শুরু করতে হবে এবং রাতের দিকেতে ফিরতে হবে । মান সিংহের ভাইয়াজির সাথে সেভাবেই কথা হয়েছিল (well, at least অামার তো সেরকমই মনে হয়) । কিন্তু অাদপে দেখা গেল তিনি সেই দিন ভুলেছেন, অথবা কিছুই হয়ে ওঠেনি ।

একটা অসহায়তা অামার ওপর হাবি হচ্ছিল এটা দেখে যে এই মুহূর্তে দাঁড়িয়ে অামার হাতে option হঠাৎই কমে গেছে । অামার হাতে অার দুটো দিন বাকি, তার মধ্যে শেষ দিনটাকে অামি ফাঁকা রাখতে চাইছিলাম as a safe day হিসাবে, অার নির্ধারিত দিনে (29/8) উঁনি অার কোন গাড়ির বন্দোবস্ত করে উঠতে পারছেন না । ( অার রাত দশটার সময় (28/8) বাইরে গিয়ে Tso-Moriri -এর গাড়ি খুঁজতে যাওয়া Leh -এর মতো জায়গায়, অনেকটা অন্ধকার হাতড়ানোর সামিল – কেননা এখানকার দোকানপাট অনেক অাগেই বন্ধ হয়ে যায় hilly station -এর usual behavior অনুযায়ী। )

উঁনি (ভাইয়াজি) অামাকে suggestion দিলেন Tso-Moriri লাস্ট দিনে করে নিতে । প্রথমাবস্থায় অামার no-option অনুযায়ী অামি সেটাকে মেনে নিলেও পরে একটু ভাবলাম, তখন বুঝলাম its insane. অামার এই পুরো ট্রিপ in fact insane, কিন্তু এটা এমনই একটা সময় যে অামাকে ভাবতে বাধ্য করছিল, logically.

Leh – Tso-Moriri – Leh – total 430 k.m. of journey. এটা যেকোন অন্য দিন হলে অামার কোন প্রবলেম ছিল না, কিন্তু লাস্ট দিনেতে হলে অবশ্যই প্রবলেম হতে পারে । পরের দিন সকাল 07:35 -এর ফ্লাইট যেটাকে অামি কোনমতেই মিস্ করতে পারি না । হিসাব লাগালে Tso-Moriri হয়ে Leh -এতে ব্যাক করতে প্রায় ১৬ ঘণ্টার মতো সময় লাগতে পারে (tiresome). একটা দিন অাগে হলেও হয়ত অামি এটা রিস্ক নিতে পারতাম, কিন্তু শেষ দিনে যদি রাস্তায় কোন রকম প্রবলেম এসে যায় এবং Leh -তে ফেরার সময়টা ক্রমশঃ দুষ্কর হয়ে ওঠে – okay, হ্যাঁ তবে অবশ্যই panicked হয়ে ওঠার কারন অাছে । অার অাছে এই জন্যই যে অামার হাতে অার কোন option থাকবে না এবং অামি অসহায় থাকব রাস্তার ওপর । 215 k.m. – believe me its a long way and specially রাস্তা যখন লাদাখের মতো জায়গায় হয় ।

মনের মধ্যে মোচড় দেয়া সত্বেও একটা সিদ্ধান্ত নিলাম এবারের মতো Tso-Moriri cancel করবার । একটা ক্ষোভ অার অসহায়তা একসাথে কাজ করতে থাকল যে অামার লক্ষ্যের সম্পূর্ণতা করে উঠতে পারলাম না – একটা লক্ষ্য এখনও বাকি থেকে গেল । কিন্তু কখনও কখনও মানুষকে সময় অার পরিস্থিতির বিচারও মেনে নিতে হয়, সময় এবং অবস্থাই বলে দেয় কোনটার দিকে যাওয়া উচিত (যদিও মনের একটা অংশ তখনও বিদ্রোহ করে যাচ্ছিল to push it more, একবার চান্স নিয়ে দেখতে ক্ষতি কি) । কিন্তু সত্যি কথা বলতে কি Last দিনে লাদাখের মতো জায়গাতে, this distance could be fatal.

অামি Tso-Moriri ড্রপ করলাম । (সেই মুহূর্তে একটা শিক্ষা নিলাম, একজনের ওপর ভরসা করে থাকাটা হয়ত ঠিক হয়নি, এটা যদি অামি সময় থাকতে বাইরে গিয়ে নিজেই কোন অ্যারেঞ্জের চেষ্টা করতাম তবে এতদিনে হয়ত Tso-moriri ঘুরেও অাসতাম (Pangong -এর মতো) । কিন্তু কে ভুল করে না, মানুষের ভুলই মানুষকে শেখায়, অার অামিও সেক্ষেত্রে কোন পরিবর্তন না । বুঝলাম একটা mistake করেছি, অার mistake যেখানে consequence -ও সেখানে থাকবেই ।)

ক্রমশঃ..

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s